1. admin@anusandhanbarta.com : admin :
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মাদারীপুরে শুভসংঘের উদ্যোগে গরীব পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী শিশু ও বৃদ্ধাকে চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ দেয়া হয়ছে বোরকা পরে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে ধরা প্রেমিক শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দেশ ছেড়েছেন হাজী সেলিম বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের বন্ধুত্বের সম্পর্ক, সাহায্য চাইতেই পারি: কাদের এবারের ঈদেও দর্শকের জন্য থাকছে ‘মিশন এক্সট্রিম’। ব্রেকিং: সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত মৃত্যুবরণ করেছেন- সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত আর নেই! সাবেক সফল অর্থমন্ত্রী, সিলেট-১ আসনের সাবেক সাংসদ, দেশবরেণ্য অর্থনীতিবীদ, ভাষা সৈনিক জনাব আবুল মাল আবদুল মুহিত, শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ৫৫ মিনিটে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি। পুত্র সন্তানের পর এবার কন্যা সন্তানের বাবা হয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেসার তাসকিন আহমেদ। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ভাই বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক দেওয়ানি মামলা করেছেন।

বরাদ্দ কম হওয়ায় ভিজিএফের চাল নেননি ইউপি চেয়ারম্যানরা

  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২২
  • ৬৫ বার পঠিত

 

ঈদ উপলক্ষে গত বছরেও মাদারীপুর সদরে ভিজিএফের ১০ কেজি করে চাল পেয়েছে ১৯ হাজার ৭ শ ৩৯টি দুস্থ পরিবার। এই বছর ঈদ উপলক্ষে সেই বরাদ্দ এসেছে ২ হাজার ১ শ ৫২টি। যার ফলে সেই ভিজিএফের চাল গ্রহণ করেনি উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরা।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সদর উপজেলা পরিষদের চত্বরে এক প্রতিবাদ সভা করেন বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরা।

প্রতিবাদ সভায় মাদারীপুর জেলা ইউপি চেয়ারম্যানদের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন সেলিম বলেন, এ বছর সদর উপজেলায় ইউনিয়নে গড়ে ৯০ থেকে ১৫০ টি ভিজিএফের চাল বরাদ্দ এসেছে। যা গতবারের চেয়ে খুবই সামান্য। এই নিয়ে আমরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাইনুদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি আমাদের বলেন, সরকারের জরিপমতে মাদারীপুর জেলা ধনীর দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে থাকায় বরাদ্দ কম এসেছে। বাস্তবে আপনারা সাংবাদিকরা মাঠ পর্যায়ে গিয়ে জরিপ করে দেখেন কতোজন গরীব গত একবছরে ধনী হয়েছে। আমাদের জানামতে ১ শতাংশ গরীব মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয় নি। তাহলে এতো কম চাল কীভাবে দুস্থ মানুষের মধ্যে বিতরণ করবো। এজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবছর এ ভিজিএফের চাল গ্রহণ করবো না।

এ সময় চেয়ারম্যানদের সভাপতি আরও বলেন, শেখ হাসিনা গ্রামকে শহর বানানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। গ্রামকে শহর বানাতে হলে প্রথমে মাটি দিয়ে রাস্তা তৈরি করতে হবে। কিন্তু আমাদের যে ৪০ দিনের মাটির তৈরির রাস্তার কর্মসূচি ছিলো হতদরিদ্রদের দিয়ে কাজ করানো, তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এলজিএসপির যে টাকা বরাদ্দ আসতো, তাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, কাবিখা ও টিআরের বরাদ্দ নামে মাত্র আছে। আমরা দাবি জানাই অতিদ্রুত এই প্রকল্পগুলো পুনরায় চালু করা হোক। নয়তো আমরা জেলার সকল চেয়ারম্যানরা কঠোর আন্দোলনে নামবো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান, মজিবুর রহমান হাওলাদার, ফারুক খান, নাসিরউদ্দিন মোল্লা (টুকু), শাহ্ মো. রায়হান কবীর, মাহফুজুর রহমান, মো. ফায়েকুজ্জামান, সোহরাব হোসেন খান, মাহফুজুর রহমান লাভলু

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Anusandhan Barta
Theme Customized By Theme Park BD