1. admin@anusandhanbarta.com : admin :
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মাদারীপুরে শুভসংঘের উদ্যোগে গরীব পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী শিশু ও বৃদ্ধাকে চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ দেয়া হয়ছে বোরকা পরে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে ধরা প্রেমিক শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দেশ ছেড়েছেন হাজী সেলিম বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের বন্ধুত্বের সম্পর্ক, সাহায্য চাইতেই পারি: কাদের এবারের ঈদেও দর্শকের জন্য থাকছে ‘মিশন এক্সট্রিম’। ব্রেকিং: সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত মৃত্যুবরণ করেছেন- সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত আর নেই! সাবেক সফল অর্থমন্ত্রী, সিলেট-১ আসনের সাবেক সাংসদ, দেশবরেণ্য অর্থনীতিবীদ, ভাষা সৈনিক জনাব আবুল মাল আবদুল মুহিত, শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ৫৫ মিনিটে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি। পুত্র সন্তানের পর এবার কন্যা সন্তানের বাবা হয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেসার তাসকিন আহমেদ। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ভাই বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক দেওয়ানি মামলা করেছেন।

উদ্ধার হয়নি হত্যার পর কেটে নেয়া পা

  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২২
  • ৩২ বার পঠিত

 

উদ্ধার হয়নি হত্যার পর কেটে নেয়া পা

মাদারীপুরে হত্যা মামলা থেকে বাঁচতে বাদী ও স্বাক্ষীদের বির“দ্ধে ৪ মামলা

মাদারীপুরে চাঞ্চল্যকর দাদন হত্যা মামলা থেকে বাঁচতে আসামীরা হত্যা মামলার বাদী ও স্বাক্ষীদের বির“দ্ধে একের পর এক মামলা দিয়ে মূল মামলাটি ভিন্ন খাতে নেয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এ পর্যন্ত ৩টি মামলা মাথায় নিয়ে ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে নিহত দাদনের পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও স্বাক্ষীরা। অন্যদিকে সন্ত্রাসীরা দাদন চোকদারকে হত্যা করে তার একটি পা কেটে নিয়ে যায়। এ ঘটনার প্রায় ৫ মাস হলেও কাটা পা উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। তবে হত্যা মামলার পুলিশ ৯আসামীকে গ্রেফতার করলেও মূল আসামী এখনো ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ২০২১ সালের ২৩ নভেম্বর শিবচর পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের পূর্ব শ্যামাইল গ্রামের দাদন চোকদার শিবচর বাজার থেকে অটোতে বাড়ি ফিরছিল। তিনি একই গ্রামের সেলিম শেখের বাড়ির সামনে আসলে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে সেলিম শেখসহ ১০/১৫ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারী কুপিয়ে দাদন চোকদারের শরীর থেকে বাম পা কেটে বিচ্ছিন্ন করে গুরুতর আহত করে। মূমূর্ষ অবস্থায় তাকে প্রথমে শিবচর ও পরে ঢাকা নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরদিন ২৪ নভেম্বর নিহতের ভাই পান্নু চোকদার বাদী হয়ে ২৮ জনকে আসামী করে শিবচর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। হত্যাকান্ডের প্রায় দুই সপ্তাহ পর গত ৮ ডিসেম্বর রাতে ঢাকার কাপ্তান বাজার থেকে এজাহারভুক্ত আসামী আরমান শেখকে শিবচর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে জেলা হাজতে প্রেরন করে। এর মধ্যে মামলা হস্তান্তর হয় সিআইডিতে। গত ২৬ জানুয়ারী নারায়নগঞ্জের ফতুল্লা থেকে দাদন হত্যা মামলার আরেক আসামী মিরাজুল শেখকে সিআইডি গ্রেফতার করে। গত ৮ মার্চ হত্যা মামলার আসামী পটু ফকির ও কামাল সরদার মাদারীপুর আদালতে আত্মসমর্পন করলে আদালতের নির্দেশে তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়। গত ৪ এপ্রিল এজাহারভুক্ত আসামী সূর্য্য শেখ, সেলিম শেখ, মোহসিন মুন্সি, রাকিব শেখ ও খোকন শেখসহ ৫ জন মাদারীপুর আদালতে আত্মসমর্থন করলে আদালতের নির্দেশে তাদেরকেও জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। হত্যা মামলার মোট ৯ আসামী জেল হাজতে থাকলেও মূল আসামী নজরুল শেখসহ বাকি আসামীরা এখনো রয়েছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। এদিকে হত্যার প্রায় ৫ মাস হলেও পুলিশ এখনো উদ্ধার করতেও পারেনি নিহত দাদনের কেটে নেয়া পা। এদিকে হত্যা মামলা থেকে নিজেদের বাঁচাতে হত্যা মামলার আসামীরা হত্যাকান্ডের প্রায় পনের দিন পর ৭ ডিসেম্বর দাদন হত্যা মামলার আসামী  ফয়জল ফকির পটুর স্ত্রী হেনু বেগম বাদী হয়ে নিহত দাদনের ছোট ভাই হত্যা মামলার বাদী পান্নু চোকদার ও সাক্ষীসহ ৩৫ জনকে আসামী করে মাদারীপুর আদালতে ঘর-বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের একটি মামলা দায়ের করে। চলতি বছরের ৪ জানুয়ারী দাদন হত্যা মামলার ১ নং আসামী নজরুল শেখের চাচা মো: আবুল শেখ বাদী হয়ে দাদন হত্যা মামলার সাক্ষী আবু তালেব আকন, মোহাম্মদ বেপারীসহ নিকট আত্বীয় ১০ জনের নামে মাদারীপুর আদালতে ঘর-বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের আরেকটি মামলা দায়ের করে। গত ১৯ জানুয়ারী দাদন হত্যা মামলার ১ নং আসামী নজরুল শেখের চাচী রসনা বেগম বাদী হয়ে দাদন হত্যা মামলার বাদী নিহত দাদনের ছোট ভাই পান্নু চোকদার, বাদীর ছেলে বিপ্লব চোকদার, সাক্ষী আবু তালেব আকন, মোহাম্মদ বেপারী, খালেক কাজীসহ নিকট আত্বীয় ৩৫ জনকে আসামী করে মাদারীপুর আদালতে আরো একটি ঘর-বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের মামলা দায়ের করে। এছাড়াও  ২০ ফেব্রুয়ারী দাদন হত্যা মামলার বাদী ও সাক্ষীদের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা করেছে আসামীপক্ষ।

দাদন হত্যা মামলার সাক্ষী মোহাম্মদ বেপারী বলেন, “হত্যা মামলা থেকে বাঁচতে আসামীরা আমাদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিচ্ছে। মামলা তুলে নিতে আমাদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। তারা প্রভাবশালী ও বিত্তশালী হওয়ায় আমরা খুব আতংকে আছি। আমরা আইন শৃংখলা বাহিনীর সহযোগীতা কামনা করি।”

নিহত দাদনের ছোট ভাই হত্যা মামলার বাদী পান্নু চোকদার বলেন, আমার ভাইকে ওরা নৃশংসভাবে হত্যা করলো। আবার আমাদের বিরুদ্ধেই একের পর এক ৪টি মিথ্যা মামলা দিলো। এখন মামলা মাথায় নিয়ে আমরাই পালিয়ে বেড়াচ্ছি। মামলা তুলে নিতে ওরা আমাদের বিভিন্ন ধরণের হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এতদিনেও পুলিশ আমার ভাইয়ের কেটে নেয়া পা উদ্ধার করতে পারেনি।”

মাদারীপুর সহকারী পুলিশ সুপার (শিবচর সার্কেল) মো: আনিসুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, “দাদন চোকদার হত্যাকান্ড আমাদের কাছে একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড মনে হয়েছে। আমরা বেশ কয়েকজন আসামীকে ধরতে সক্ষম হয়েছি। বর্তমানে মামলাটি সিআইডির হাতে রয়েছে। এই হত্যাকান্ডের পরবর্তীতে আসামীদের বাড়িতে যেন কোন হামলার ঘটনা না ঘটে সেজন্য দীর্ঘদিন আমাদের পুলিশ বাহিনী এলাকায় পাহারায় ছিল। তারপরও হত্যা মামলার বাদীদের বিরুদ্ধে যে মামলা হয়েছে সেগুলো তদন্ত করে দেখা হবে।”

মাদারীপুর

২৩.০৪.২০২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Anusandhan Barta
Theme Customized By Theme Park BD